Archive for the ‘টিপস এন্ড ট্রিকস’ Category

53.8 কেবি এর ক্ষুদ এন্টি ভাইরাস সফটওয়্যার

মার্চ 8, 2009

এই এন্টি ভাইরাস সফটওয়ারটি আমার বিশ্ববিদ্যালয় এর Parhta স্যার আমাকে গিফট করেছিলেন। C programing দিয়ে তৈরি করা এই এন্টি ভাইরাস সফটওয়ার । Hidden file number,delete hidden and virus files,rename virus or hidden file সহ অনেক option পাবেন । সফটওয়ার open করলে

“Enter your command” লিখা আসবে । সফটওয়ারটিতে উল্লেখিত index number দিয়ে এন্টার key চাপলে কাজ হবে

A small anti virus

নোট প্যাড দিয়ে তৈরি করুন নিজস্ব ক্যালকুলেটর

মার্চ 8, 2009

প্রথমে একটি নোট প্যাড খুলুন এবং নিচের কোডগুলো কপি করুন । তারপর clac.bat এই নাম এ সেইভ করুন । তৈরি হয়ে গেল ক্যালকুলেটর!

Calculator

@echo off
color 0A
title CALCULATOR VERSION 1.2
:loop
cls
echo by Munna
echo _
echo by munnakar@gmail.com
echo.
echo Calculator Version 1.2
echo -----------------------------------------------
echo * = MULTIPLY
echo + = ADD
echo - = SUBTRACT
echo 2 = SQUARED
echo / = DIVIDE
echo After an equation, type CLEAR to clear the screen of your equations, type KEEP to leave them there, or type EXIT to leave.
:noclear
set /p UDefine=
set /a UDefine=%UDefine%
echo.
echo =
echo.
echo %UDefine%
echo KEEP, CLEAR, OR EXIT?
set /p clearexitkeep=
if %clearexitkeep%==CLEAR goto loop
if %clearexitkeep%==KEEP echo. && goto noclear
if %clearexitkeep%==EXIT (exit)
:misspell
echo.
echo -----------------------------------------------
echo You misspelled your command. Please try again (make sure you are typing in all caps LIKE THIS).
echo Commands:
echo CLEAR Clear all previous equations and continue calculating.
echo KEEP Keep all previous equations and continue calculating.
echo EXIT Leave your calculating session
echo Enter in a command now.
set /p clearexitkeep=
if %clearexitkeep%==CLEAR goto loop
if %clearexitkeep%==EXIT (exit)
if %clearexitkeep%==KEEP goto noclear
goto misspell

অফিস ২০০৭ এ ক্লাসিক ম্যানু

মার্চ 8, 2009

উইন্ডোজ ভিসতার সাথে বাজারে আসে মাইক্রোসফটের নতুন অফিস ২০০৭। অফিস ২০০৭ এ এসেছে ম্যানু এবং টুলবারের পরিবর্তে রিবোন। আর সাধারণত ব্যবহারকারীরা রিবোনে অনেক কিছুই খুজে পান না। ফলে অফিস ২০০৭ ব্যবহার করা অনেকের জন্য বিরক্তিকর এবং বেশ কষ্টদায়ক। আর অফিস ২০০৭ এ পূর্বের সংস্করণের মত ম্যানু ব্যাবহার করার কোন ব্যবস্থা নেই। তবে ইউবিটম্যানু সফটওয়্যার দ্বারা অফিস ২০০৭ এ রিবোনের পাশাপাশি ম্যানু এবং টুলবার আনা যাবে ফলে ব্যবহারকারীদের একটু সুবিধাই হবে। মাত্র ২৬০ কিলোবাইটের ফ্রিওয়্যার এই সফটওয়্যারটি (এ্যাডঅন্সটি) http://www.ubit.ch/software/ubitmenu-languages থেকে ডাউনলোড করে ইনস্টল করুন। এবার অফিস (ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্ট) খুলে দেখুন Menu নামে নতুন একটি ট্যাব আসছে। এবার ম্যানু ট্যাবে ক্লিক করলে তার ভিতরে অফিস ২০০৭ এর পূর্বের সংস্করণের মত ম্যানু এবং টুলবার আছে। এখন থেকে আপনি রিবনের পাশাপাশি ক্লাসিক ম্যানুর মাধ্যমে অফিস ২০০৭ ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এই ম্যানু বা টুলবার পরিবর্তন করতে পারবেন না।

যদি উইন্ডোজ লগইনের পরে কিবোর্ড কাজ না করে

মার্চ 7, 2009

ভাইরাস হচ্ছে কম্পিউটার ব্যবহাকারীদের নিত্য দিনের সমস্যা। ফ্রি এন্টিভাইরাস সাধারণত সব ধরনের এন্টিভাইরাস সনাক্ত করতে পারে না। ট্রোজন হর্সের এমনই এক ভাইরাস হচ্ছে Trojan.Win32.VB.dsu যেটা আক্রান্ত বেশীরভাগ কম্পিউটারে acdsee.exe নামে থাকে। এই ভাইরাসের কারণে উইন্ডোজ লগইন করার পরে কম্পিউটারের কীবোর্ড নিস্ক্রিয় হয়ে যায়। ফলে সিস্টেম রিস্টোর বা নতুন করে উইন্ডোজ ইনস্টল করা ছাড়া কোন উপায় থাকে না। তবে AVG 8.0, Symantece, Kaspersky 2009 এন্টিভাইরাস আপডেট থাকলে এই ভাইরাসটি সনাক্ত করতে পারে।
কিন্তু এন্টিভাইরাস ছাড়াই রেজিস্ট্রি এডিট করে এই ভাইরাস থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায় এবং কীবোর্ডকে সক্রিয় করা যায়। উইন্ডোজ লগইন করার সাথে সাথে যেহেতু ভাইরাসটি কীবোর্ডকে নিস্ক্রিয় করে দেয় তার মানে লগইন করার পরে ভাইরাসটি চালু থাকে তাই সাধারণভাবে রেজিস্ট্রি এডিট করলে তখনই রেজিস্ট্রি পূর্বের অবস্থায় ফিরে আসে। অর্থাৎ আপনার পরিবর্তন কোন কাজে আসে না। বেশীরভাগ ক্ষেত্রে এমনটি হয়ে থাকে ফলে সমস্যার সমাধান হয় না। আবার অনেক সময় রেজিস্টি নিস্ক্রিয় থাকার ফলে রেজিস্ট্রি এডিটর চালুই করা যায় না। তাই লগইন করার পূর্বেই রেজিস্ট্রি এডিট করে সমস্যার সমাধান করতে হবে।
এজন্য প্রথমে উইন্ডোজে লগইন করে সিস্টেম৩২ (C:\WINDOWS\system32, যদি C: এ উইন্ডোজ ইনস্টল করা থাকে) ফোল্ডারে যান। এখানে sethc.exe ফাইলটিকে ব্যাপআপ রাখতে হবে। এজন্য অন্যনামে রিনেম করে বা অন্যকোন ফোল্ডারে কপি করে রাখতে পারেন। এরপরে cmd.exe ফাইলটিকে ডেক্সটপে বা অন্যকোথাও কপি করে sethc.exe নামে রিনেম করুন এবং সিস্টেম৩২ ফোল্ডারে পেস্ট (ওভাররাইট) করুন এবং উইন্ডোজ লগআউট করুন।
এবার Shift কী পরপর ৫বার চাপুন তাহলে কমান্ড প্রোম্পট চালু হবে। কমান্ড প্রোম্পটে regedit.exe লিখে এন্টার করুন তাহলে রেজিস্ট্রি এডিটর খুলবে।
রেজিস্ট্রি এডিটরে HKEY_CURRENT_USER\Software\Microsoft\Windows\ShellNoRoam\MUICache এর অধীনে যান। এখানে C:\Windows\help\services.exe নামের একটি স্ট্রিং ভ্যালু আছে সেটা মুছে দিন।
এরপরে HKEY_LOCAL_MACHINE\SOFTWARE\Microsoft\Windows NT\CurrentVersion\Winlogon এর অধীনে যান। এখানে Shell নামের স্ট্রিং ভ্যালুর উপরে মাউস দ্বারা দুইবার ক্লিক করুন। এখানে Value Data অংশে Explorer.exe রেখে ডানের বাকী তথ্য মুছে দিন এবং রেজিস্ট্রি এডিটর বন্ধ করুন।
এবার উইন্ডোজ লগইন করে দেখুন কীবোর্ড ঠিকমত কাজ করছে। এখন পূর্বের ব্যাকআপ রাখা sethc.exe ফাইলটি সিস্টেম৩২ ফোল্ডারে পেস্ট (ওভাররাইট) করুন।

ডেক্সটপে আনুন ডিস্কের শর্টকাট লিংক

মার্চ 7, 2009

কোন ফ্লাশ ডিস্কে বা সিডি/ডিভিডি ড্রাইভে প্রবেশ করালে যদি তার শর্টকাট ডেক্সটপে সয়ংক্রিয়ভাবে চলে আসতো তাহলে কেমন হতো! Desktop Media সফটওয়্যার দ্বারা এমনই সুবিধা পাওয়া যাবে। ফ্রিওয়্যার এই সফটওয়্যারটি www.ianandmonica.com এই সাইট থেকে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিন। ইনস্টল করার পরে পোর্টেবল হিসাবেও ব্যবহার করা যাবে। এবার সফটওয়্যারটি চালু করে সিস্টেমট্রেতে আইকনে দুইবার ক্লিক করে অপশনস থেকে ড্রাইভ টাইপসে কোন্‌ কোন্‌ ধরনের ড্রাইভ (removable drives, fixed drives, network/remote drives, CD/DVD drives and RAM disks) সংযুক্ত হলে তার শর্টকাট ডেক্সটপে আসবে তা নির্বাচন করে Ok করলেই হবে। ডিফল্ট হিসাবে রিমুভাল ড্রাইভ এবং সিডি/ডিভিডি ড্রাইভ থাকে। এরপর থেকে উক্ত নির্বাচিত ডিস্ক ইনসার্ট করলেই তার শর্টকাট ডেক্সটপে আসবে আর রিমুভ করলে ডেক্সপট থেকে উক্ত শর্টকাট আইকন চলে যাবে।